All Country News :



সবচেয়ে জনপ্রিয়

Facebook Page

Twitter Follow

ইংলিশ ভার্সন

প্রকাশিত তারিখ : August 6, 2018 | আপডেট সময়: 2:01 PM

17 Views

শখের বশে চুলে রঙ করুন ঘরোয়া উপাদানে

প্রয়োজন কিংবা শখের বশে চুলে রঙ করেন অনেকেই। কিন্তু বাজার থেকে কিনে আনা রঙে অনেক রকমের ক্ষতিকর রাসায়নিক দ্রব্য থাকে। এই ক্ষতিকর রাসায়নিক মিশ্রিত হেয়ার ডাই ব্যবহারের ফলে মাথার ত্বকে চুলকানি, ফুসকুড়ি থেকে শুরু করে দেখা দেয় নানা রকম চর্মরোগ। তাই চুলে রাসায়নিক মিশ্রিত ক্ষতিকর রঙ না লাগিয়ে জেনে নিন এমনই কিছু প্রাকৃতিক উপাদানের কথা যা দিয়ে বাড়িতেই তৈরি করে নেওয়া যাবে চুলের রঙ।

চুলে গাঢ় বাদামি কিংবা কালো রঙ করতে চাইলে বাড়িতে খানিকটা চা বা কফি দিয়েই তা সম্ভব। প্রথমে কয়েক কাপ চা কিংবা কফি দিয়ে কড়া লিকার তৈরি করুন। এর পর সেটা ঠান্ডা হয়ে এলে নিজের পরিষ্কার চুলের ওপর ঢেলে দিন। ২০-৩০ মিনিট সময় দিন দ্রবণটিকে চুলের সঙ্গে ভালোভাবে মিশে যাওয়ার জন্য। প্রথম সপ্তাহে অন্তত দু’বার এই কাজটি করুন যাতে করে কাঙ্ক্ষিত চুলের রঙটি পাওয়া যায়। এরপর এক সপ্তাহ বা দুই সপ্তাহ পরপর প্রয়োজনমতো চুল রাঙিয়ে নিন।

চা বা কফি ছাড়াও বেশ কিছু উপাদান আপনার চুল কালো করতে পারে। যেমন, লেবুর রস আর আমলকি চূর্ণের মিশ্রণ। এই মিশ্রণটি চুল আর মাথার ত্বকে লাগালে কিছু দিনের মধ্যেই আপনার চুল কালো হয়ে উঠবে।

মেহেদি পাতা চুলে লালচে ভাব এনে দেওয়ার জন্যে খুবই কার্যকরী। এক্ষেত্রে মেহেদি পাতা বেটে নিয়ে চুলে মাখিয়ে নিন। শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। শুকিয়ে গেলে চুল ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। আপনার চুল যদি হালকা লালচে হয় আর আপনি সেটাকে আরও বেশি লাল করতে চান, সে ক্ষেত্রে ন্যাচারাল ডাই হিসেবে বিট (সবজি) ব্যবহার করে দেখতে পারেন। এতে আপনার চুলে হালকা গোলাপি বা লালচে ভাব চলে আসবে।

রেউচিনি বা রুবার্ব গাছের মূল সোনালি চুলের জন্যে অত্যন্ত কার্যকরী। এ জন্যে ২ কাপ পানিতে তিন টেবিল চামচ রুবার্ব সেদ্ধ করে নিন। অল্প আঁচে ১৫ মিনিট রাখুন। এর পর দ্রবণটিকে ঠান্ডা হতে দিন। সারা রাত দ্রবণটি একইভাবে রেখে দিয়ে পরের দিন এটি চুলে লাগান আর চুলে সোনালি আভা ফিরে পান।

[প্রিয় পাঠক, আপনিও এফ টিভি নিউজ অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রাজনীতি, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-ftvnewsbd@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

আরও পড়ুন



Recent Posts